শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ২৪, ২০১৭ ,১২ ফাল্গুন ১৪২৩
৩০ আগস্ট ২০১৬ মঙ্গলবার , ১২ : ১৮ পূর্বাহ্ণ

  • ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহে নগরীতে বাড়ীওয়ালাদের তৎপরতা বৃদ্ধি

    x

    Decrease font Enlarge font

    09টাইমস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে পাইকপাড়ায় জঙ্গি আস্তানায় যৌথ বাহিনীর অভিযানে গুলশান হামলার মাষ্টারমাইন্ড তামিমসহ তিন জঙ্গি নিহত হবার ঘটনায় নড়েচরে বসেছে নারায়ণগঞ্জের প্রশাসন ও বাড়িওয়ালারা। ভাড়াটিয়াদের যাবতীয় তথ্য সংগ্রহে ফরম বিতরন, মসজিদের মাইকে ঘোষনা সহ ব্যাপক তৎপরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। পাইকপাড়ার ঘটনা যেন আর পুনরাবৃত্তি না ঘটে সেই লক্ষ্যে বাড়তি সর্তকতামূলক ব্যবস্থা লক্ষ্য করা যাচ্ছে বাড়িওয়ালাদের মধ্যে। তাদের সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছে নারায়ণগঞ্জের পুলিশ প্রশাসন।

    ফরমের তথ্য সংগ্রহের তালিকার মধ্যে মালিক ও ভাড়াটিয়ার নাম, ঠিকানা, ছবি, জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার, পেশা, ধর্ম, শিক্ষাগত যোগ্যতা, কর্মস্থলের ঠিকানা প্রদান বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

    ঘটনার বিবরনে প্রকাশ, গত ১ জুলাই গুলশান ও ৭ জুলাই শোলাকিয়ায় বর্বরোচিত জঙ্গি হামলার পর দেশব্যাপী জঙ্গি বিরোধী সচেতনতায় বাড়ীওয়ালাদের সংশ্লিষ্ট থানায় তাদের বাড়ীর ভাড়াটিয়াদের সকল প্রকার তথ্য প্রদানের নির্দেশনা দেন। কিন্তু নারায়ণগঞ্জের বাড়ীওয়ালারা তখন ততটা তৎপর হয়নি। কিন্তু গত ২৭ আগষ্ট শহরের পাইকপাড়াস্থ দেওয়ান ভিলায় গুলশান হামলার মাস্টারমাইন্ডসহ ৩ জঙ্গি নিহত হওয়ার পর ভাড়াটিয়াদের তথ্য গোপনের অভিযোগে সেই ভবন মালিক নুরুদ্দিন দেওয়ান গ্রেফতার হওয়ার পর এখন ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহ করতে বেশ তৎপর হয়ে উঠেছে বাড়ীওয়ালারা। আর প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন এলাকার মসজিদের মাইকে ঘোষণা করে সংশ্লিষ্ট থানা ও পুলিশ ফাঁড়ি থেকে ভাড়াটিয়া তথ্য ফরম সংগ্রহ করার অনুরোধ করা হচ্ছে।

    এ বিষয়ে শহরের নিতাইগঞ্জ এলাকার ভাড়াটিয়া হিমাদ্রী সাহা হিমু বলেন, এই জনসচেতনা মূলক উদ্যোগ যদি গুলশান এবং শোলাকিয়া হামলার পর পরই নেওয়া হতো তাহলে হয়তো পাইকপাড়ায় এমন একটি ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটতো না। আমরা আশা রাখছি এই উদ্যোগ শতভাগ সম্পন্ন হলে সকল ভাড়াটিয়া সহ বাড়ির মালিকরা নিরাপদে থাকবে।

    দেওভোগ এলাকার বাড়ীওয়ালা মেহেদি হাসান জানান, ভাড়াটিয়াদের নিয়ে আমরা এখন আতঙ্কিত। ভবিষ্যতে এমন ঘটনার যেন শিকার না হতে হয় সেই দিকে প্রশাসনসহ আমাদের সকলের সচেতন থাকতে হবে। তবে আমরা অনেক সময় থানায় গেলে বিভ্রান্তিতে পরতে হয়। তাই ভাড়াটিয়াদের তথ্য সম্বলিত ফরম দেয়ার পর যেন কোন ধরনের বিভ্রান্তিতে পড়তে না হয় সেজন্য প্রশাসনকে দৃষ্টি দেয়ার আহবান জানান। এদিকে, গত ২৮ আগষ্ট এক সংবাদ সম্মেলনে নারায়ণগঞ্জের সকল ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহে বাড়ীওয়ালাদের প্রতি আহবান জানান পুলিশ সুপার মো: মঈনুল হক।