সোমবার, এপ্রিল ২৪, ২০১৭ ,১১ বৈশাখ ১৪২৪
২২ ডিসেম্বর ২০১৬ বৃহস্পতিবার , ৮ : ৫৭ অপরাহ্ন

  • বিশৃঙ্খলার চেষ্টাকালে লাঠিপেটার শিকার হলেন মজিবুর-মতি

    x

    Decrease font Enlarge font

    T-4-1টাইমস নারায়ণগঞ্জ: ভোটকেন্দ্রে বিশৃংখলার সৃষ্টির চেষ্টাকালে র‌্যাব-পুলিশের লাঠিপেটার শিকার হলেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মজিবুর রহমান ও থানা যুবলীগ সভাপতি এবং নাসিক ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী (ঠেলাগাড়ী) আলহাজ্ব মতিউর রহমান মতি।

    বৃহস্পতিবার (২২ ডিসেম্বর) নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ভোট গ্রহণের সময় সিদ্ধিরগঞ্জের পৃথক স্থানে এই দু’জন লাঠিপেটার শিকার হন।

    জানাগেছে, সকাল ৯টায় ১নং ওয়ার্ডের ক্যানেল পাড়ের জিয়াউল হক কিন্ডার গার্টেন কেন্দ্রে দলীয় কর্মী সমর্থক নিয়ে ভীড় করেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান। এসময় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা র‌্যাব’র একটি টিম তাদের সরে যাওয়ার জন্য অনুরোধ জানালে মজিবুর রহমান র‌্যাব’র সাথে তর্কে জড়িয়ে পড়েন। এসময় র‌্যাব সদস্যরা তাদের সেখান থেকে সরিয়ে দিতে লাঠিপেটা করেন।

    T-4 র‌্যাব জানিয়েছে, মজিবুর উক্ত কেন্দ্রের ভোটার না হয়েও লোকজন নিয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করার চেষ্টা করলে আমরা তাকে বাঁধা দিই। কিন্তু তাতে তিনি রাজী না হওয়ায় বাধ্য হয়ে নির্বাচনের সুষ্ঠ পরিবেশ বজায় রাখতে লাঠিচার্জ করি।

    T-5 অপরদিকে, দুপুরে ৬ নং ওয়ার্ডে সিদ্ধিগঞ্জ সফুর আলী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে কাউন্সিলর প্রার্থী সিরাজ মন্ডলের সমর্থকদের সাথে বাদানুবাদে জড়িয়ে বিশৃংখলার চেষ্টা করতে চাইলে অপর কাউন্সিলর প্রার্থী ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মতিউর রহমান মতিসহ তার সমর্থকদের লাঠিচার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ।

    এরপর পুলিশকে প্রার্থী পরিচয় দিয়ে কোনরকম মানে ঘরে ফিরে মতি।

    T-3 বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে সেখানে দায়িত্বপ্রাপ্ত সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহ মো: মঞ্জুর কাদের টাইমস নারায়ণগঞ্জকে জানান, নিছক ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে। নির্বাচন সুষ্ঠ ভাবে সম্পন্নের লক্ষে পুলিশ কঠোর অবস্থানে ছিল বিধায় পরিবেশ শান্ত রাখতে সামান্য লাঠিচার্জ করেছে।

    • .