রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭ ,৯ আশ্বিন ১৪২৪
২৫ ডিসেম্বর ২০১৬ রবিবার , ৪ : ২৭ অপরাহ্ন

  • রূপগঞ্জে দলিল জালিয়াত চক্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ

    x

    Decrease font Enlarge font

    Narayanganjটাইমস নারায়ণগঞ্জ (রূপগঞ্জ প্রতিনিধি): রূপগঞ্জে জালজালিয়াতির মাধ্যমে আইডি কার্ড ও ছবি ব্যবহার করে ভূয়া দলিল সম্পাদনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় রোববার (২৫ ডিসেম্বর) সকালে উপজেলার বাগবেড় গ্রামের গিয়াসউদ্দিনের স্ত্রী হালিমা বেগম বাদি হয়ে জালিয়াত চক্রের বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

    বাদির লিখিত অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত ১৪ ডিসেম্বর ভূয়া দাতা সাজিয়ে বাগবেড় গ্রামের আমির উদ্দিনের ছেলে ছানাউল্লাহ নূরী (৩২) বাগবেড় মৌজার সিএস ও এসএ ১০০, আরএস ১৩৬, ১৩৭ ও ১৩৮ নং দাগে ১২ শতাংশ জমি রেজিষ্ট্রি করে। এ সময় বাদি হালিমা বেগম ও তার বোন হোসনে আরার ছবি ও জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি ব্যবহার করে তাদের নামীয় সম্পত্তি দখলে নিতে হেবা ঘোষণা দলিল সম্পাদন করে। যার দলিল নং ১৭০৬৬। দলিলে শনাক্তকারী ও স্বাক্ষীর অনুপস্থিতিতে দলিল সম্পাদন করায় একই এলাকার অলি উল্লাহর ছেলে আমান উল্লাহ বাদি হয়ে জালিয়াত চক্রের হোতা ছানাউল্লাহ নূরী ও তার বাবা আমির উদ্দিনের বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়রী করেন।

    হালিমা বেগম ও হোসনে আরার একমাত্র সম্বল ভিটেমাটি থেকে উচ্ছেদ করতেই জালিয়াত চক্রটি ভূয়া দলিল সম্পাদন করেছে। হালিমা বেগম বিচারের আশায় এখন দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছে। অবিলম্বে জালিয়াত চক্রটিকে গ্রেফতারের দাবি জানান এলাকাবাসী।

    এদিকে লাখ টাকা ঘুষের বিনিময়ে রূপগঞ্জ সাব রেজিষ্ট্রার (পশ্চিম) আলী আহাম্মদ ও দলিল লেখক হাজী রবিউল আলম নবীর সহযোগিতায় জাল দলিল সম্পাদন করার অভিযোগ করেন হালিমা বেগম ও তার বোন হোসনে আরা। রূপগঞ্জ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের দলিল লেখক হাজী রবিউল আলম নবী (সনদ নং ৭৯) জানান, ছানাউল্লাহ নূরী তার বাবা আমির উদ্দিনের নামে গত ১৪ ডিসেম্বর ১২ শতাংশ জমি রেজিষ্ট্রি করেন। তবে দলিল দাতারা সঠিক ছিল কিনা তা আমার জানা নাই।

    এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ সাব রেজিষ্ট্রার আলী আহাম্মদ জানান, গত ১৪ ডিসেম্বর হেবা ঘোষণাপত্র দলিল নং ১৭০৬৬ এর বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে দলিল লেখক ও সম্পাদিত দলিলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে। তবে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ সঠিক নয়।

    রূপগঞ্জ থানার ওসি ইসমাইল হোসেন জানান, এ ব্যাপারে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।