মঙ্গলবার, জানুয়ারী ২৪, ২০১৭ ,১০ মাঘ ১৪২৩
২৬ ডিসেম্বর ২০১৬ সোমবার , ৬ : ৩২ অপরাহ্ন

  • রূপগঞ্জে পুলিশকে অবরুদ্ধ করে আসামি ছিনতাই

    x

    Decrease font Enlarge font

    Gটাইমস নারায়ণগঞ্জ (রূপগঞ্জ প্রতিনিধি): নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে পুলিশকে অবরুদ্ধ করে চাঁদাবাজি ও ইউপি সদস্যকে পেটানোর অভিযোগে আটক ২ আসামিকে ছিনিয়ে নিয়ে গেছে তাদের অনুসারীরা। পরে এ ঘটনায় জড়িত একজনকে আটক করেছে পুলিশ। গত ২৫ ডিসেম্বর রোববার রাতে উপজেলার ভোলাব ইউনিয়নের আতলাপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

    আহত ইউপি সদস্য বাদশা মোল্লা জানান, স্থানীয় দড়ি চারিতাল্লুক এলাকায় প্রবাসী আবু তাহেরের স্ত্রী কাজল রেখা ১৪ শতাংশ জমি কিনে বাড়ি নির্মাণের জন্য মাটি কাটার কাজ শুরু করেন। পরে এলাকার চিহ্নিত চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী তারেক, মোগল, জাহাঙ্গীর, কাউসার, একরামুল, রুবেল, আসলাম সহ আরো ৭/৮ জন তার কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। এই ঘটনা কাজল রেখা স্থানীয় ইউপি সদস্য বাদশা মোল্লাকে জানালে তিনি চাদাঁবাজদের গালমন্দ করেন এবং চাঁদা দাবি না করার জন্য বলেন। এতে চাঁদাবাজরা বাদশা মোল্লার উপর ক্ষিপ্ত হয়। এর জের ধরে রোববার রাতে বাদশা মোল্লার মালিকানাধীন নজরুল টেক্সাইল মিলের কাপড় বিক্রির ৩ লাখ ২০ হাজার টাকা নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে আতলাপুর বাজার এলাকায় চাঁদাবাজরা তার পথরোধ করে। এ সময় তারা বাদশা মোল্লাকে এলোপাথারী পিটিয়ে টাকা লুটে নেয়। খবর পেয়ে রূপগঞ্জ থানাার উপ-পরিদর্শক রাসেল আহমেদ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশ সেখান থেকে অভিযুক্ত তারেক ও আসলামকে আটক করলে তাদের ২৫/৩০ জন অনুসারী জড়ো হয়ে পুলিশকে অবরুদ্ধ করে ফেলে। এক পর্যায়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশ আটক দুজনকে ছেড়ে দেয়। গতকাল সোমবার সকালে এ ঘটনায় জড়িত দড়ি চারিতাল্লুক গ্রামের গোলবক্স মিয়ার ছেলে শফিকুলকে আটক করে পুলিশ। এই ঘটনায় বাদশা মোল্লা বাদি হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

    এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানাার উপ-পরিদর্শক রাসেল আহমেদ পুলিশকে অবরুদ্ধ করে ২ আসামিকে ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, পুলিশ দেখেই তারেক দৌড়ে পালিয়ে গিয়েছিল। আর আসলামকে আটকের পর লোকজন উত্তেজিত হয়ে উঠে। ফোর্স স্বল্পতার কারণে এবং পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে আসলামকে ছেড়ে দেয়া হয়। তবে অভিযুক্তদের গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে।