মঙ্গলবার, জানুয়ারী ২৪, ২০১৭ ,১০ মাঘ ১৪২৩
০২ জানুয়ারী ২০১৭ সোমবার , ৯ : ৪৬ অপরাহ্ন

  • ওবায়দুল্লার বাড়ী থেকে বোমা উদ্ধার

    x

    Decrease font Enlarge font

    বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না পরাজিত কাউন্সিলর প্রাথীর!

    Obaydolটাইমস নারায়ণগঞ্জ: বিতর্ক যেন পিছু ছাড়ছে না নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের পরাজিত (প্যানেল মেয়র) কাউন্সিলর হাজী ওবায়েদ উল্লাহর। নানা বিতর্কের পর সোমবার (২ জানুয়ারী) বিকেলে হাজী ওবায়েদ উল্লাহর শহরের বেপাড়ীপাড়াস্থ বাস ভবনের সানসেটের উপরেরে দুটি বোমা সাদৃশ্য বস্তু উদ্ধারের ঘটনায় আবারো তোলপাড় ও সমালোচনার সৃস্টি হয়েছে।

    সদর থানা পুলিশের কাছে খবর আসে পরাজিত কাউন্সিলর হাজী ওবায়েদ উল্লাহর প্রাচীর ঘেরা বাড়ীতে কে বা কারা বোমা নিক্ষেপ করেছে । এমন খবর পেয়ে পুলিশ বোমা সাদৃশ্য বস্তু উদ্ধারের পর ঘটনাকে ভিন্ন চোখে দেখছে পুলিশের দারোগা শহিদুল ইসলাম।

    দারোগা শহিদুল ইসলাম জানান, বেতার যন্ত্রের মাধ্যমে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল বেপারী পাড়াস্থ সাবেক কাউন্সিলর হাজী ওবায়েদ উল্লাহর বাড়ীতে এসে তার বাড়ীর সানসেটের উপরে দুটি বোমা সাদৃশ্য স্কসটেপ পেচানো দুটি বস্তু উদ্ধার করি । বস্তু দুটি ককটেলের মতো দেখা গেলেও তা তদন্ত না করলে বোঝা যাবে না এটি আসলে কি ছিলো। আমরা বোমা সাদৃশ্য বস্তু দুটি উদ্ধার করেছি।

    এমন বোমার খবর পেয়ে বাবুরাইলের উৎসুক জনতা অনেকে বলেন, নির্বাচনের আগে থেকেই প্যানেল মেয়র হাজী ওবায়েদ উল্লাহ ও তার লোকজন একের পর সমালোচনার জন্ম দিয়ে যাচ্ছেন । নির্বাচনের আগে ৩০ নভেম্বর রাত ৮টায় নিজ বাড়ীতে অবৈধভাবে উঠান বৈঠক করার সময়ে এক গোয়েন্দা সদস্য নূরুজ্জামান এ বিষয়ে কথা বলতে আসলে তাকে আটক করে মারধর করে। নির্বাচনের দিন ২২ ডিসেম্বর বেপারীপাড়া ভোট কেন্দ্রে নিজে উপস্থিত হয়ে ভোটারদের গালিগালাজ করে। নির্বাচনে পরাজিত হয়ে প্রতিপক্ষ ভাতিজা রিয়াদকে না পেয়ে আপন ভাই শুক্কুর হোসেনকে অপর ভাতিজা মামুনকে দিয়ে শারিরীকভাবে লাঞ্চিত করায়। পরজয়ের গ্লানি ভুলতে না পেরে প্রতিপক্ষ ভাতিজা রিয়াদ হাসানের সাথে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় দেওভোগের বাবুরাইলে এখনো থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এমন পরিস্থিতির মধ্যে গতকাল সোমবার বিকেলে নিজ বাড়ীর সানসেটের উপরে কে বা কারা বোমা মেরেছে বলে অভিযোগ তুলে এলাকায় আতংকের সৃস্টি করে তোলে ওবায়েদ উল্লাহ ।

    উপস্থিত অনেকেই আরো অভিযোগ করে বলেন, বিগত ১৩ বছরে প্যানেল মেয়র থাকাকালে হাজী ওবায়েদ উল্লাহর বাড়ীতে কোন ভোটার এই বাড়ীর গেইটের সামনে দাড়ানোর সাহস পেতো না সেই বাড়ীতে বোমা মারার সাহস কে করবে ? বাড়ীর বাইরে থেকে বোমা মারলে সানসেটের মধ্যেই পরে থাকবে কেন ? একটাও ফাটলো না আবার সানসেটে পরে থাকার অর্থইহলো নিজেরা এই বোমা সাদৃশ্য বস্তু রেখে অন্যকে ফাসানোর অপচেস্টা ! আর এই ঘটনা ঘটিয়ে প্রতিপক্ষদের ঘায়েল করতে এটি আরেকটি অপকৌশল বলে অনেকেই মন্তব্য করেছেন।

    এ বিষয়ে দারোগা শহিদুল আরো বলেন, বোমা সাদৃশ্য বস্তু দুটি নাকট হতে পারে । তদন্ত করেই বলা যাবে প্রকৃত কারণ।