বুধবার, এপ্রিল ২৬, ২০১৭ ,১৩ বৈশাখ ১৪২৪
০৯ জানুয়ারী ২০১৭ সোমবার , ৩ : ০৬ অপরাহ্ন

  • সন্ধ্যার পর খোলা মাঠে আড্ডা দিলেই সাজা: ডিসি

    x

    Decrease font Enlarge font

    04টাইমস নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া বলেছেন, সন্ধ্যার পর খোলা মাঠে ছেলেমেয়েদের আড্ডা দিতে দেখলে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে সাজার ব্যবস্থা করা হবে। নারায়ণগঞ্জকে মাদকমুক্ত করতে প্রশাসনের সকল সেক্টরের কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে। আমি আশা করবো, জনপ্রতিনিধিরাও আমাদের সাথে থেকে আমাদেরকে সহযোগিতা করবেন।

    আলীগঞ্জ ক্লাবের উদ্যোগে আয়োজিত ৫ম শেখ রাসেল স্মৃতি ক্রিকেট টূর্ণামেন্টের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধাণ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

    সোমবার (৯ জানুয়ারী) আলীগঞ্জ মাঠে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

    জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া আরো বলেন, কোন জমি অধিগ্রহন করে ব্যবহার না করা হলে তা জেলা প্রশাসনের আওতায় চলে যায়, তার পূর্বের মালিকের কাছে ফেরত দেওয়ার কোন সুযোগ নেই। আলীগঞ্জ মাঠকে মাঠ হিসেবে রাখার জন্য যা যা করণীয় তার সবই করবো।

    T-1-2 আলীগঞ্জ ক্লাবের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলবো, আপনারা ক্লাবের কার্যাবলী আরো বৃদ্ধি করুন। যাতে করে আরো বেশী সংখ্যক মানুষের সম্পৃক্ততা সৃষ্টি হয়।

    তিনি আরো বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট ঘাতকের নির্মম আঘাতে যেভাবে কিশোর শেখ রাসেলকে জীবন দিতে হয়েছিলো, বাংলাদেশ থেকে আর কাউকেই যেন শেখ রাসেলের মতো বিদায় নিতে না হয়। শেখ রাসেলসহ সকল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ৫ম শেখ রাসেল স্মৃতি ক্রিকেট টূর্ণামেন্টের শুভ উদ্বোধন ঘোষনা করছি।

    সভাপতির বক্তব্যে আলীগঞ্জ ক্লাবের সভাপতি ও জাতীয় শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির শ্রমিক উন্নয়ন ও কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব কাউসার আহমেদ পলাশ বলেন, এই মাঠে একসময় মাদকের আস্তানা ছিলো। অবৈধ দখলদারদের কবলে পরে মাঠ ও এলাকার যুব সমাজ উচ্ছন্নে চলে যাচ্ছিলো। সেই অবস্থা থেকে পরিত্রাণের লক্ষ্যে এই মাঠকে উদ্ধার করে এলাকার যুবসমাজকে মাদক থেকে দুরে রেখে খেলাধুলায় উদ্বুদ্ধ করা হয়েছে।

    আলহাজ্ব কাউসার আহমেদ পলাশ আরো বলেন, আলীগঞ্জ মাঠকে ষ্টেডিয়ামে রূপান্তরিত করতে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধাণমন্ত্রী বরাবর ২৫ হাজার মানুষের স্বাক্ষর সম্বলিত আবেদনপত্র আমরা দিয়েছিলাম। এই আবেদনের খবর পেয়ে কিছু সুচতুর লোক এই মাঠে ফ্লাট বানানোর ষড়যন্ত্র শুরু করে। এই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে তারা আমাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি পর্যন্ত দিয়েছিলো। আমরা এর প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছি। নারায়ণগঞ্জের সর্বস্তরের মানুষ এই মাঠকে রক্ষার জন্য রাজপথে আন্দোলন করেছে। আমরা এই মাঠ রক্ষায় হাইকোর্টে রীট করেছি। মাঠ ঠিক রেখে ভবন তৈরী করা ঠিক হবে কিনা জানতে হাইকোর্ট পরিবেশ অধিদপ্তরকে দায়িত্ব দেয়। কিন্তু আজ পর্যন্ত পরিবেশ অধিদপ্তর সে রিপোর্ট পেশ করেনি।

    বক্তব্য পর্ব শেষে জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া, আলীগঞ্জ ক্লাবের সভাপতি আলহাজ্ব কাউসার আহমেদ পলাশসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা জাতীয় সংগীতের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা ও ক্লাবের পতাকা উত্তোলন করে এবং পায়রা উড়িয়ে ৫ম শেখ রাসেল স্মৃতি ক্রিকেট টূর্ণামেন্টের শুভ উদ্বোধন করেন।

    T-1 এ সময় গার্মেন্টস সেক্টরের শ্রমিকরা ও আলীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের গার্লস স্কাউটরা মনোজ্ঞ ডিসপ্লে প্রদর্শণ করে।

    উদ্বোধণী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি কেইউ আকসির, এজেডএম ইসমাইল বাবুল, সাধারণ সম্পাদক তানভীর আহমেদ টিটু, ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামালউদ্দিন, আলীগঞ্জ ক্লাবের সহ সভাপতি নাসিরউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম মেম্বার প্রমূখ।

    উদ্বোধণী খেলায় অংশ নেয় ইষ্টার্ণ ক্লাব বনাম নীট কর্ণসার্ণ ক্লাব।