সোমবার, এপ্রিল ২৪, ২০১৭ ,১১ বৈশাখ ১৪২৪
১১ জানুয়ারী ২০১৭ বুধবার , ৮ : ২১ অপরাহ্ন

  • সাইফুল্লাহ বাদলের আরোগ্য কামনায় স্কুল শিক্ষকদের দোয়া

    x

    Decrease font Enlarge font

    08টাইমস নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি, কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও দেওভোগ হাজী উজির আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আলহাজ এম সাইফুল্লাহ বাদলের সুস্থ্যতা কামনায় দোয়া ও মিলাদের আয়োজন করা হয়েছে।

    বুধবার (১১ জানুয়ারী) সকাল ১১ টায় চেয়ারম্যানের বাসভবনে স্কুল শিক্ষকদের উদ্যোগে এ মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করা হয়।

    মিলাদ ও দোয়ার পর দেওভোগ হাজী উজির আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক শিক্ষিকাবৃন্দ এম সাইফুল্লাহ বাদলের বাড়িতে গিয়ে তার শারীরিক খোঁজ খবর নেন।

    এই সময় বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক হুমায়ুন কবির রতন বলেন, আমি লক্ষ কোটি শুকরিয়া আদায় করছি মহান রব্বুল আলামিনের কাছে। কারন আল্লাহর অশেষ মেহেরবানিতে আমাদের অভিভাবক সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্যাক্তিত্ব সাইফউল্লাহ বাদল ভাই আমাদের মাঝে ফিরে পেয়েছি। তাই আমরা আমাদের এই বড় ভাই কে দেখার জন্য স্কুলের সকল শিক্ষক, শিক্ষিকা তার বাসায় এসেছি।

    তিনি আরো বলেন, আমি স্কুলের সকল অভিভাবকদের কাছে সাইফউল্লাহ বাদল ভাই এর জন্য দোয়া চাই। আল্লাহ যেন তাকে নেক হায়াৎ দান করেন।

    এসময় সাইফউল্লাহ বাদল স্কুলের শিক্ষক, শিক্ষিকাদের সাথে স্কুলের  লেখাপড়ার মান নিয়ে সন্তষ্টি প্রকাশ করেন এবং সামনের বছর পরীক্ষার ফলাফল আরো ভাল করার তাগিদ দেন।

    এম সাইফুল্লাহ বাদল আরো বলেন, টাকার অভাবে কোন ছাত্র ছাত্রীর যাতে লেখাপড়া যেন বন্ধ না হয়ে যায়, সেই দিকে খেয়াল রাখবেন। পরে তিনি সকল শিক্ষক শিক্ষিকাবৃন্দকে ধন্যবাদ জানান ।

    এ সময় উপস্থিত ছিলেন দেওভোগ হাজী উজির আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক রফিকুল ইসলাম, আবু তাহের, মুকন্দ্র লাল হাওলাদার, রুহুলআমিন, নুরুল আমিন, মহিলা সহকারি প্রধান শিক্ষিকা আলেয়া বেগম, নাসরিন আক্তার প্রমূখ। দোয়া ও মিলাদ পরিচালনা করেন অত্র বিদালয়ের ধর্মীয় শিক্ষক মাওলানা মোস্তফিজুর রহমান।

    উল্লেখ্য, গত ৫ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার রাত ১১ টায় সাইফউল্লাহ বাদল বুকে ব্যাথা অনুভব করলে নারায়ণগঞ্জ শহরের একটি ক্লিনিকে নিয়ে আসে পরিবারের লোকজন। ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ তাকে ঢাকার এ্যাপোলো হসপিটালে প্রেরন করে। এ্যাপোলো হাসপাতালে চারদিন চিকিৎসা শেষে ১০ জানুয়ারী তিনি তার বাসায় ফিরে আসেন।