বুধবার, মে ২৪, ২০১৭ ,৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪
০২ ডিসেম্বর ২০১৫ বুধবার , ২ : ৪৯ অপরাহ্ন

  • বহুত বছর আগে জমি পাইছি কিন্তু আইজ পর্যন্ত জমির দহল পাই নাই -মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী

    x

    Decrease font Enlarge font

    টাইমস্ নারায়ণগঞ্জকে দেয়া একান্ত স্বাক্ষাৎকারে বন্দরের অসহায় মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী

    06টাইমস্ নারায়ণগঞ্জ:  আমাগো আগের এমপি এস এম আকরামের আমলে শেখ হাসিনার সরকার আমারে ১৫ শতাংশের একটা জমি দিছিল, হেই সরকার গেছে, বিএনপি সরকার গেছে হেইরপর আবার শেখ হাসিনার সরকার ফিরা আইয়া ৭ বছর পার অনয়া এহনও আছে। হেইরপরও পরের বাড়ি থাহি ভাড়া। জমি আছে পরের কাছে আর কাগজ আছে আমার কাছে কিন্তু ১৬/১৭ বছর পার অইলেও জমির দহলে যাইতে পারি নাই। পাওনের মইধ্যে মাসে ৮ হাজার টেহা কইরা মুক্তিযোদ্ধা সম্মাণী পাই। এইর আগে ডিসি সাবের অফিসেত্তে পাঁচ হাজার টেহা দিছিল। আবার হুনতাছি শেখ হাসিনায় বলে আমাগো ফ্ল্যাট দিব। এ সরকার আমলে ভালই আছি।

    টাইমস্ নারায়ণগঞ্জকে দেয়া একান্ত স্বাক্ষাৎকারে অত্যন্ত সরল ভঙ্গিতে কথাগুলো বলেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর থানাধীন কলাবাগ এলাকার দুঃস্থ ও অসহায় বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী।

    তিনি জানান, ২ পোলা, ২ মাইয়া আর এক বিবি নিয়া এহন কাম করি ভাত খাই, তয় খারাপ নাই এই সরকার আমলে ভালই আছি।

    মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী চাউল ভাঙানো মেশিন চালিয়ে সংসার চালায়। ছেলেরা একজন রিক্সা চালক অপরজন চালায় অটো বাইক। মেয়েদের বিয়ে দিয়ে দিয়েছেন বলে জানান তিনি।

    তার ভাষ্যমতে, ১৯৯৬ইং থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত শেখ হাসিনার সরকার আমলে তৎকালীন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি’র মাধ্যমে ১৫ শতাংশ জমি বরাদ্দ পেয়েছিলেন তিনি। পেয়ে খুব খূশীও হয়েছিলেন কিন্ত দীর্ঘ ১৫/২০ বছর পার হলেও ঐ জমিতে যেতে পারেন নি। তাই তিনি এ ব্যাপারে সাংবাদিকদের মাধ্যমে স্থানীয় আসনের বর্তমান এমপি আলহাজ্ব একেএম সেলিম ওসমানের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।