রবিবার, ফেব্রুয়ারী ১৭, ২০১৯ ,৫ ফাল্গুন ১৪২৫
২২ ডিসেম্বর ২০১৮ শনিবার , ২ : ০৭ অপরাহ্ন

  • অনন্য শামীম ওসমান!

    x

    Decrease font Enlarge font

    01টাইমস নারায়ণগঞ্জ: অনন্য উদাহরণ সৃষ্টির পথে এগুচ্ছেন আলোচিত সংসদ সদস্য ও নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শামীম ওসমান। নারায়ণগঞ্জের প্রার্থীরা রাতের ঘুম হারাম করে যখন নিজের আসন নিয়ে প্রচারণায় ব্যস্ত ঠিক তখন তিনি অন্য আসনগুলোতে মহাজোটের প্রার্থীদের প্রচারণায় সময় দিচ্ছেন। শুধু তাই নয়, নির্বাচনের দিন তিনি নিজের আসন ছেড়ে নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনে সকাল থেকেই অবস্থান করবেন বলেও ঘোষণা দিয়েছেন।

    দেখা গেছে, গত ১৪ ডিসেম্বর বন্দরের সমরক্ষেত্রে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে মহাজোটের প্রার্থী তাঁর বড় ভাই সেলিম ওসমানের নির্বাচনী প্রচারণায় তিনি অতিথি হয়ে উপস্থিত ছিলেন। শুধু উপস্থিত থাকা নয়, ছাত্রলীগ-যুবলীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাদের দিকনির্দেশনাও দিয়েছেন। এরপর ১৬ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনে মহাজোটের প্রার্থী জাপা নেতা লিয়াকত হোসেন খোকার প্রচারণাসভায় যোগ আলোচিত এই সাংসদ। সেখানে তিনি ঘোষণা দেন-নির্বাচনের দিন সোনারগাঁয় অবস্থান করবেন।

    ওই দুই আসনে শামীম ওসমানের উপস্থিতি দৃশ্যপট বদলে দেয়। এ প্রসঙ্গে জাতীয় পার্টির নেতা ও নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনে মহাজোটের প্রার্থী লিয়াকত হোসেন খোকা জানান, শামীম ভাই গণমানুষের নেতা। তিনি সোনারগাঁয় আসার পরে পরিস্থিতি বদলে গেছে। আওয়ামলী লীগের একটি বড় অংশ এখন আমার জন্য মাঠে কাজ করছেন।

    অন্যদিকে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে প্রার্থী সেলিম ওসমান বলেন, আমি ত প্রকাশ্যেই শামীম ওসমানকে আমার নেতা বলে বক্তব্য রেখেছি। ওই হ্যামিলনের বাশিওয়ালা। এখানকার আওয়ামী লীগ নেতাদের ঐক্য তৈরি করে মাঠে নামাতে শামীম ওসমানের ওই বক্তব্য ও উপস্থিতি বেশ কাজে দিয়েছে।

     

    ফলে নিজের আসন ছেড়ে অন্য আসনগুলোতে জাতীয় পার্টির দুই প্রার্থীর জন্য প্রচারণা করে উদাহরণ সৃষ্টি করতে যাচ্ছেন। প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী জমিয়তে ওলামায়ে ইসলামের ধানের শীষ প্রতীকের মুফতি মনির হোসেন কাসেমী মাঠে দূর্বল অবস্থানের কারণে খুব বেশি বেগ পেতে হচ্ছে না শামীম ওসমানকে।

    শামীম ওসমান ১৯৯৬ সালে প্রথম সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০১ সালে বিএনপি- জোট সরকার ক্ষমতায় আসার পরে তিনি দেশ ত্যাগ করেন। দীর্ঘদিন কানাডায় অবস্থান করেন। ২০০৮ সালে দেশে ফিরে আসলেও তখন মনোনয়ন দেয়া হয় তাঁর চাচী সারাজাগানো অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরীকে। এরপর ২০১১ সালে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়েও তিনি ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর কাছে বিপুল ভোটের পরাজিত হন। পরে ২০১৪ সালে ৫ জানুয়ারী নির্বাচনে তিনি বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

    শামীম ওসমান নারায়ণগঞ্জের অন্যতম প্রাচীন বিদ্যাপীঠ সরকারী তোলারাম কলেজের ভিপি নির্বাচিত হয়ে রাজনীতি শুরু করেন। ১৯৮১ সালে তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের গাড়ি আটকে দিয়ে আলোচনায় উঠে আসেন। এরপর খালেদা জিয়ার লং মার্চে বাধা দিয়ে দেশব্যাপী আলোচিত হয়ে উঠেন।