রবিবার, ফেব্রুয়ারী ১৭, ২০১৯ ,৫ ফাল্গুন ১৪২৫
২২ ডিসেম্বর ২০১৮ শনিবার , ৭ : ৩০ অপরাহ্ন

  • মহাজোট প্রার্থীদের ঘিরে বিতর্কিতরা!

    x

    Decrease font Enlarge font

    07রুদ্র প্রকাশ, টাইমস নারায়ণগঞ্জ: নির্বাচনী প্রচারণা তুঙ্গে, প্রার্থীদের দম ফেলানোর সময় নেই। ঘরে ঘরে, পথে-ঘাটে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে মহাজোটের প্রার্থীদের অনেকটা নির্ঘুম রাত কাটছে। মহাজোট প্রার্থীদের এই ব্যস্ততাকে কাজে লাগিয়ে মাদক-ব্যবসায়ী, স্বর্ণচোরাকারবারী ও বির্তকিতরা এসে পাশে দাঁড়িয়ে যাচ্ছেন। ফটোসেশন করে দিব্যি তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দিয়ে ‘জাতে’ উঠে যাচ্ছেন। কিন্তু মহাজোট প্রার্থীদের বিশেষ করে নারায়ণগঞ্জ-৪ ও ৫ আসনে ক্ষমতাসীন দলের দুই প্রার্থী শামীম ওসমান ও সেলিম ওসমানের সাথে ছবি ও বির্তকিতদের ঘনিষ্ঠ ছবি তৃণমূলে বিরূপ প্রভাব পড়ছে। স্থানীয়ভাবে ব্যাপক সমালোচনা হলেও প্রার্থীদের কানে এসব পৌছাতে দিচ্ছেন না ‘বলয়’ তৈরি করে রাখা সুবিধাভোগী কয়েকজন নেতা।

    অভিযোগ রয়েছে, ওইসব বির্তকিতদের কাছ থেকে সুবিধা নিয়েই তাদের নির্বাচনী মঞ্চে উঠতে সাহায্য করছেন তারা। শুধু মঞ্চে-ই নয়, বির্তকিতদের বাড়িতে উঠান বৈঠকও আয়োজন করা হচ্ছে। এমনকি বির্তকিত কয়েকজনের নতুন বাড়িও উদ্বোধন করেছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী শামীম ওসমান।

    নাম প্রকাশ না করার শর্তে মহানগর আওয়ামী লীগের এক নেতা জানান, আমরা দলের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে জাতীয় পার্টির নেতা সেলিম ওসমানের লাঙলের জন্য ঘরে ঘরে গিয়ে দিনরাত পরিশ্রম করে ভোট চাইছি। কিন্তু শীতলক্ষায় এক সভায় সেলিম ওসমানের পাশেই চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ী র‌্যাব-পুলিশের তালিকাভূক্ত সন্ত্রাসী সালাউদ্দিন বিটুকে দেখা গেছে। পরীক্ষিত নেতাদের ঠেলে সে সামনের সারিতেই দাঁড়িয়ে ছিল। বিষয়টি স্থানীয়রা ভাল ভাবে নেয়নি। কিন্তু সেলিম ওসমান সাহেবের মুখে দিকে তাকিয়ে কেউ কিছু বলেনি।

    অন্যদিকে বক্তাবলী আওয়ামী লীগের এক প্রবীণ নেতা টাইমস নারায়ণগঞ্জকে জানান, ছমীরনগরে এলাকার চিহিৃত সোনা চোরাকারবারী বলে পরিচিত ইদ্রিস আলীকে উঠান বৈঠকে পরীক্ষিত নেতাদের বাদ দিয়ে তাকে গুরুত্ব দিয়ে শামীম ওসমানের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়। এমনকি নতুন বানানো বিলাসবহুল বাড়িও শামীম ওসমানকে দিয়ে উদ্বোধন করানো হয়।

    শুধু বক্তাবলীতে নয়, কাশীপুরে ৪নং ওয়ার্ডেও বির্তকিত যুবলীগ কর্মী রনির উঠানে বৈঠক দেয়া হয়। অল্প সময়ে বেকার থেকে কোটিপতি বনে যাওয়া এই কর্মীরও বিলাসবহুল বাড়ি উদ্বোধন করেন শামীম ওসমান। একই ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডে বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে আসা কামাল সরদারের বাড়িও উদ্বোধন করেন শামীম ওসমান।

    সেলিম ওসমান ও শামীম ওসমান নয়, নারায়ণগঞ্জে পাঁচটি আসনেই মহাজোটের প্রার্থীদের ঘিরে এখন বির্তকিতদের আনাঘোনা। প্রার্থীদের ব্যস্ততা ‘নিবার্চনী কাজে এসব লোকের প্রয়োজন’ এসব যুক্তি দেখিয়ে প্রার্থীদের কাছের লোকজনই তাদের জায়গা করে দিচ্ছেন।

    জেলা আওয়ামী লীগের এক প্রবীণ নেতা এ প্রসঙ্গে বলেন, প্রার্থীদের ভোটারদের পছন্দ হলেও তাদের নিয়োজিত কর্মীদের কারণে অনেকসময় ভোট নষ্ট হয়। এলাকায় বির্তকিত এসব ব্যক্তিদের নয়, পরিচ্ছন্ন ব্যক্তিদের নির্বাচনী কাজে ব্যবহার করানোর মতো প্রজ্ঞা দেখাতে হবে প্রার্থীদের। কারণ এসব সুযোগ-সন্ধানীরা তাদের কাজ সেরে নীরবে কেটে পড়বে। ক্ষতি যা হবার তা হয়ে যাবে।

    তিনি আরও বলেন, প্রার্থীদের কাছের ব্যক্তিদের কর্মকা- সর্ম্পকেও খোঁজ-খবর নিতে হবে। তারা কার বাড়িতে নিয়ে যাচ্ছেন, কার টাকায় উঠান বৈঠক হচ্ছে-এসব। কখনো কখনো এসব বৈঠকের পরে ওই এলাকার পাবলিক রিয়েকশনও জানতে হবে।