শনিবার, এপ্রিল ২০, ২০১৯ ,৬ বৈশাখ ১৪২৬
০৬ এপ্রিল ২০১৯ শনিবার , ৬ : ০৫ অপরাহ্ন

  • মশা মারতে কামান দরকার নাই-শামীম ওসমান

    x

    Decrease font Enlarge font

    Upটাইমস নারায়ণগঞ্জ:  নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের ধৈর্য ধরার আহবান জানিয়ে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, আমরা কর্মীসভা ডাকলে হয়, জনসভা। আর জনসভা ডাকলে হয় জন¯্রােত। সুতরাং মশা মারতে কামান দরকার নাই।

    শনিবার (৬ এপ্রিল) বিকালে  ‘নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী পরিবারকে ধংসের চক্রান্ত্রের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াও’ শ্লোগান সামনে রেখে জেলা ও মাহনগর আওয়ামীলীগের জরুরী কর্মীসভা অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে সাংসদ উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

    শামীম ওসমান আরও বলেছেন, ‘আমরা সরকারী দল এটা মনে রাখতে হবে। আমরা আমাদের বাবা মায়ের পর সবচেয়ে বড় মানুষ হচ্ছে বঙ্গবন্ধু। তিনি নাই তাই এখন আছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি দেশের উন্নয়ন সুশাসনের জন্য কাজ করছেন। আমাদের অনেকের বয়স তরুণ। রক্ত টগবগে। আবার নেতাকর্মীরাও দেখলাম খুব উত্তেজিত। আল্লাহর রহমত, আমি ২০১১ এর শামীম নয়, থাকলে আমিও উত্তেজিত হইতাম। হওয়াটাই স্বাভাবিক। বয়সের সাথে সাথে সব কিছুর পরিবর্তন হয়।

    শামীম ওসমান বলেন, পর্দার আড়ালেও খেলা থাকে। হুট কইরা কাউরে ভুল বুইঝেন না। বাইরে থেইকা আইসা কেউ হয়তো এই খেলায় পা দিয়া ফেলছে। পর্দার আড়ালে অনেক খেলা হচ্ছে। আমি কারো নাম বলবো না। আমি এগুলারে গুণায় ধরি না। জামাতের সাথে তার কানেকশন ফাঁস হইলো। তদন্ত হইলো। এরপরই শুরু হইলো এই খেলা।

    তিনি বলেন, বাইরের লোকরে দোষ দিয়া লাভ নাই। দোষতো আমার ঘরের মানুষের। যাকে আমি সন্ত্রাসের কারণে দুইবার আমি মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরিয়ে আনলাম। যে কিনা শ্রমিক আন্দোলনের নামে অসন্তোষ করে। তাকে এরেস্ট করার নির্দেশ ছিলো। আমি বললাম, কইরেন না। সরায়ে দেন। এখন সেও নাকি সন্ত্রাস বিরোধী কমিটি করে, আমার হাসি লাগে।

    সাংসদ শামীম ওসমান আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জে আরেকজন আছে মহিলা। যার সাথে জামায়াতের সাথে জড়িত। সেই কথা প্রকাশ হয়েছে। সেই তিনি হুমকি দেন মামলা করবেন। তয় করেন না ক্যান? ও সাংবাদিক ভাইয়েরা তারে গিয়া বলেন না, মামলা করতে। দেখি না কতটুকু সৎ সাহস থাকে তাহলে যেন মামলা করে।

    এ সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সেক্রেটারী আবু হাসনাত শহীদ বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা, সহ-সভাপতি চন্দন শীল, ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম সাইফউল্লাহ বাদল, সেক্রেটারী শওকত আলী, বন্দর আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ রশিদ প্রমুখ।