রবিবার, অক্টোবর ১৩, ২০১৯ ,২৮ আশ্বিন ১৪২৬
২০ এপ্রিল ২০১৯ শনিবার , ৫ : ০৪ অপরাহ্ন

  • রাত নামলেই ‘ডাকাত রতন’ আতঙ্ক!

    x

    Decrease font Enlarge font

    003টাইমস নারায়ণগঞ্জ: কখনো গাড়ি থামিয়ে ডাকাতি, কখনো নির্জনে লোকজনকে আটকে সর্বস্ব লুট। নারায়ণগঞ্জের সদর উপজেলার বক্তাবলীর দু’টি গ্রামে কয়েক হাজার মানুষ এখন ডাকাত আতঙ্কে। দূর্গম চরাঞ্চল প্রসন্ননগর ও ছমিরনগর নামের ওই দুই গ্রামে রাত নেমে এলেই পথচারীরা ডাকাত রতন বাহিনীর ভয়ে অন্যপথে গন্তব্যে পৌছায়।

    স্থানীয়রা জানায়, বক্তাবলীর দূর্গম এ দু’টি গ্রাম-প্রসন্ননগর ও ছমিরনগরে ডাকাত রতন বাহিনী এখন আতঙ্কে পরিণত হয়েছে। রাত নেমে এলে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রাস্তায় নামে রতন ও সাঙ্গরা। ওই পথে যাওয়া মানুষজনের কাছ থেকে নগদ টাকা, অলঙ্কার এমনকি কখনো কখনো ব্যাটারীচালিত অটো রিক্সাও ছিনিয়ে নিচ্ছে রতন। কেউ কেউ প্রতিবাদ করে ধারালো অস্ত্রের তলেও পড়েছেন। গত দুই মাসে বেশ কয়েকটি ডাকাতির ঘটনা ঘটলেও ভয়ে কেউ পুলিশের ধারস্থ হয়নি।

    স্থানীয়রা আরো জানায়, মাঝরাতে ওই সড়কগুলো মানুষের আর্তনাদ শোনা যায়। সকালে ওই সড়কের রক্তের দাগও মেলে কখনো কখনো। একদল ডাকাত রাত নামলেই অস্ত্র নিয়ে রাস্তায় নেমে পড়ে। তাদের হাত থেকে নিরীহ নারীরাও রক্ষা পাচ্ছে না। পুলিশকে জানানো হলেও দূর্গম এলাকায় হওয়ায় ওই এলাকায় পুলিশ যেতেও গড়িমসি করে।

    আর এসব অপকর্মের হোতা ডাকাত রতন মাদক, ডাকাতি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি সহ ৭/৮টি মামলার আসামী। রতন ফতুল্লা থানা যুবলীগের সভাপতি মীর সোহেল আলীর অন্যতম শিষ্য। ইউপি চেয়ারম্যান এম শওকত আলী ও মীর সোহেলের নামে এলাকায় রঙ বেরঙের ফেস্টুনও ছাঁটিয়েছে এই রতন। যা স্থানীয়দের বিস্মিত করেছে।

    মাস দু’য়েক আগে হঠাৎ ধনপতি বনে যাওয়া ইদ্রিস আলীর ভাগিনা আব্দুল মজিদের কাছ থেকে ৫ লাখ টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে জেলার এক প্রভাবশালী এমপির ফোনে মীর সোহেলের মাধ্যমে সে টাকা ফেরত দেয় রতন। কিন্তু সাধারণ মানুষ ভয়েও পুলিশকে এসব কথা বলতে পারছে না।

    এ ব্যাপারে বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম শওকত আলী ঘটনাটির কথা স্বীকার করে জানান, লুট করে নেয়া ৫ লাখ টাকা পরে ফেরত দিয়েছে রতন।

    এ বিষয়ে কথা বলার জন্য মীর সোহেলকে বেশ কয়েকবার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

    অন্যদিকে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, বিষয়টি অবশ্যই গুরুত্ব দিয়ে দেখা হবে। অপরাধীর কোন রাজনৈতিক পরিচয় বিবেচ্য নয়।