বুধবার, মে ২৪, ২০১৭ ,৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪
১০ ডিসেম্বর ২০১৫ বৃহস্পতিবার , ২ : ৩২ অপরাহ্ন

  • আমার মায়ের বুকটাকে স্বাধীন করতেই যুদ্ধ করেছি- বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ্ আলম

    x

    Decrease font Enlarge font

    8টাইমস নারায়ণগঞ্জ: হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব। তাঁর ডাকে সাঁড়া দিয়ে ঊনিশ’শ একাত্তরে মাত্র ১৫ বছর বয়সে আমার জন্মভূমিকে স্বাধীন করতে মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলাম। কিছু পাওয়ার জন্য নয়, কোন কিছুর বিনিময়ে নয়, লক্ষ্য ছিল একটাই আমার মায়ের বুকটাকে স্বাধীন করা। যে বুকে শুধু আমরা রাজত্ব করবো, স্বাধীন সত্ত্বা নিয়ে বাঁচবো এই স্বপ্ন নিয়ে জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছি। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে মাত্র নয় মাস যুদ্ধ করে এ দেশের স্বাধীনতা অর্জনে সফল হয়েছি, বিশেষ করে বঙ্গবন্ধুর মত মহান নেতা’র নেতৃত্বে আমরা সকল মুক্তিযোদ্ধারা স্বাধীনতা সংগ্রাম করেছি, এইতো আমাদের পরম পাওয়া। তাঁর বদৌলতে বর্তমান সরকার আমাদেরকে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান আখ্যা দিয়ে, মাসে মাসে সম্মানজনক সম্মানী আর মৃত্যুকালে রাষ্ট্রীয় মর্যাদার স্বীকৃতি দিয়ে কৃতজ্ঞতা বন্ধনে করেছে ঋণী। যথেষ্ট মূল্যায়নে করেছে ভূষিত। একজন মুক্তিযোদ্ধা ও বাঙালী হিসেবে এজন্য আমি গর্বিত এবং বর্তমান সরকারের কাছে অত্যন্ত কৃতজ্ঞ। মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে টাইমস নারায়ণগঞ্জের বিশেষ আয়োজন জাতির বীর সন্তানদের স্মৃতিকথা শীর্ষক একান্ত স্বাক্ষাৎকারে উল্লেখিত অনুভূতি প্রকাশ করেন নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ থানাধীন মোগরাপাড়া ইউনিয়নের ফুলবাড়িয়া এলাকার মুজিবুর রহমানের লড়াকু ছেলে মোঃ শাহ আলম। টাইমস নারায়ণগঞ্জকে তিনি আরও জানান তিনি তিনি ২ ছেলে ১ মেয়ের জনক। স্ত্রী পুত্র পরিজন নিয়ে বেশ ভাল আছেন। বড় ছেলে প্রাইভেট ফার্মের চাকুরীজীবী, ছোট ছেলে প্রাইভেট ইউনিভার্সিটিতে বিবিএ করছে আর মেয়ে চলে গেছে শ্বশুর বাড়ি। পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর ছিলেন তিনি। বিগত ২০০৮ সাল থেকে আছেন অবসরে। চাকুরীর পেনশন, সরকারের দেয়া মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী আর ছেলের উপার্জনে বেশ ভাল আছেন বলে জানালেন এই বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ শাহ্ আলম। এই বিজয়ের দিনে জাতির কাছে তাঁর প্রত্যাশা প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধারা যেন প্রজন্ম পর প্রজন্ম মূল্যায়িত হয় এবং ৩০ লক্ষ শহীদের তাজা প্রাণ,২ লক্ষ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে কষ্টসাধ্য অর্জন এ স্বাধীনতাকে রক্ষায় জাতিকে যে কোন ষড়যন্ত্রের মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকতে হবে।